বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষা ও আমার অভিজ্ঞতা - ১

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষা নিয়ে  আমার জানাশোনা বেশ কমই ছিল, এখনও কমই আছে। মণিপুরী ও বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষার মধ্যে কী এমন তফাৎ তা বুঝতেই খানিকটা সময় লেগেছে, অবশ্য আগে জানার চেষ্টাও করিনি। এর সঙ্গে প্রথম পরিচয় হয় উইকিপিডিয়ায় কাজ করতে গিয়ে। উইকিপিডিয়ায় বাংলা ছাড়াও আরও যে দুটি ভাষা বাংলা লিপি ব্যবহার করে তার মধ্যে বিষ্ণুপ্রিয়া একটি। আগে মৈথিলী উইকিপিডিয়াতেও বাংলা লিপি ব্যবহার করা হত। এখন তারা দেবনাগরী লিপি ব্যবহার করছে।  তো লিপিগত সাদৃশ্য থাকার দরুন সহসা মনে হল ভাষাটাকে জানার চেষ্টা করা যাক। কিন্তু হতাশ হলাম এই জন্য অনলাইন কি অফলাইন কোন লাইনেই কোন রিসোর্স পেলাম না যেটা আমাকে বিষ্ণুপ্রিয়া ভাষা নিয়ে সাহায্য করবে। এমনকি একটি চটি সাইজ অভিধানও না!! শেষে নিজেই উড়ে এসে জুড়ে বসে গেলাম বিষ্ণুপ্রিয়ার ময়নাতদন্তে, আশা করি মণিপুরী ভ্রাতৃগণ এই অনধিকার চর্চা কসুর করবেন।

প্রথম কয়েক ধাপে আমি বিষ্ণুপ্রিয়া ব্যাকরণ ও ভাষাতত্ত্ব নিয়ে খানিকটা ধারণা  দিই। (আমি ধারণা দেবার কেউ না, আমি বিশেষজ্ঞও নই, নিজে যতটুকু সঞ্চয় করতে পেরেছি তার কিয়দংশ কিংবা পুরোটাই লেখার চেষ্টা করব।)


বিষ্ণুপ্রিয়া ভাষায় বিভক্তি

বাংলার ন্যায় বিষ্ণুপ্রিয়াতেও র-বিভক্তির দেখা মিলবে, অবশ্য অসমীয়াতেও -র বিভক্তি রয়েছে। 
যেমন- ভাষার= ঠারর
এখানে ঠার মানে ভাষা, কিন্তু ঠারের না হয় তা হয়েছে ঠারর
একইভাবে মানুহর মানে মানুষের যেখানে মানু মানে মানুষ এবং বাংলাদেশর মানে বাংলাদেশের। 

বাক্যের গঠন

ইংরেজি, হিন্দি ভাষার মত বিষ্ণুপ্রিয়াতে is উপস্থিত, যা বাংলাতে বেশিরভাগ সময়ই উহ্য থাকে। 

আর্টিকেল ব পদাশ্রিত নির্দেশক

ইংরেজি ভাষাতে আমরা আর্টিকেলের যে ছড়াছড়ি দেখতে পাই, বিষ্ণুপ্রিয়াতেও তার দেখা মেলে। পদাশ্রিত নির্দেশক দুই রকমের হয়ে থাকে। নির্দিষ্টতা জ্ঞাপক ও অনির্দিষ্টতা জ্ঞাপক। -হান সম্ভবত একমাত্র নির্দিষ্টতা জ্ঞাপক পদাশ্রিত নির্দেশক, বাংলায় আমরা যে -টি, -টা, -খানা, -খান, -খানি'র কথা শুনে আসছি এটি তার সমতুল্য। এর ব্যবহারের মাত্রা ইংরেজি the এর মত কিন্তু ব্যবহারের ধরণ বাংলার মতই। বাংলার ভাষার মতই এখানে আর্টিকেল ব্যবহৃত হয় শব্দের পরে। যেমন 
১. দেশ[টি]=দেশ[হান]= [the] state
২. প্রকার[#]=প্রকার[হান]=[the] classification
৩. সম্পূর্ণ রাত [#]=আস্তা  রাতি[হান]= [the] whole night
৪. বাংলায় আমরা সাধারণত উদ্দেশ্যটি ব্যবহার করিনা, ক্ষেত্রবিশেষে উদ্দেশ্যটা ব্যবহার করি যদিও। "আপনার উদ্দেশ্য কী?" এই বাক্যে বাংলা ও ইংরেজি উভয় ভাষাতেই আর্টিকেল উহ্য থাকবে। তবে বিষ্ণুপ্রিয়াতে -হান বসবে অর্থাৎ লিখতে হবে "উদ্দেশ্যহান"। 
যেমন- "তির উদ্দ্যেশ্যহান কিতা?" এর অর্থ আপনি অনুমান করতে পারছেন আশা করি। অতটাও কঠিন পদবন্ধ না।

বহুবচনে -গি এর ব্যবহার

* জিলাগি - জেলাসমূহ

Related Posts

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Subscribe Our Newsletter